স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা, যুবকের মাথা ন্যাড়া করে জুতোর মালা…

ক্লাস নাইনের এক স্কুল ছাত্রীকে ধ'র্ষণের চেষ্টার অ'ভিযোগ প্রতিবেশী যুবকের বি'রুদ্ধে। সালিশি সভার মোড়লদের নিদানে ওই যুবকের মাথা ন্যাড়া করে মাথায় আলকাতরা লাগিয়ে ও গলায় জুতোর মালা পড়িয়ে ঘোরানো হল গোটা গ্রাম।

কিশোরীর চিৎকারে স্থানীয়রা ঘ'টনাস্থলে ছুটে আসে। অভিযুক্ত যুবককে হাতে নাতে ধ'রে ফে'লে স্থানীয়রা। এদিকে ঘ'টনায় গ্রামের মোড়োলরা সালিশি সভার ডাক দেয়। সেই মত গতকাল বিকেলে রায়নন্দাতে সালিশি সভা বসে। যেখানে স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান হোসেমিন চৌধুরী থেকে পঞ্চায়েত সদস্য সহ গ্রামবাসীরা হাজির ছিলেন।

সমজিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের রায়নন্দা এলাকার ঘ'টনা। অভিযুক্ত যুবকের নাম রাজিদুল চৌধুরী (২৩)। তবে ঘ'টনার কোন খবর পু'লিশের কাছে নেই বলে জা'নিয়েছেন কুমা'রগঞ্জ থা'নার ওসি সুদীপ্ত দাস।

জানা গিয়েছে, রাজিদুল চৌধুরী ক'র্মসূত্রে গোয়াতে থাকেন। অনেক দিন আগেই তিনি বিয়ে করেছেন। এক সন্তানও রয়েছে তার। কিছুদিন আগেই বাড়ি এসেছে সে। অ'ভিযোগ, গত রবিবার এলাকারই ক্লাস নাইনের এক ছাত্রী টিউশন প'ড়ে বাড়ি ফিরছিল। সেই সময় রাজিদুল ওই কিশোরীকে জো'র করে পাট ক্ষেতে নিয়ে চলে যায়। সেখানে তাকে ধ'র্ষণ করার চেষ্টা করে।

শালিশি সভায় মোড়লদের নিদানে অভিযুক্ত যুবককে ৪৫ হাজার টাকা জ'রিমানা করা হয়। কান ধ'রে ওই যুবককে উঠবোস করানো হয়। এরপর তাকে লজ্জা দিতে গ্রামবাসীরা তার অর্ধেক চুল কেটে তাতে আলকাতরা মাখিয়ে দেয়। এরপর গলায় জুতোর মালা পড়িয়ে গোটা গ্রাম ঘোরানো হয়। এদিকে সেই ছবি করে পোস্ট করা হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই ছবি ভাইরাল হয়ে যায়।

এ বিষয়ে স্থানীয় বাসিন্দা নাজিমুল মণ্ডল জা'নান, অভিযুক্ত যুবক গ্রামেরই এক কিশোরীকে পাট খেতে নিয়ে গিয়ে ধ'র্ষণের চেষ্টা করে। তাই গ্রামের লোকজন তার মাথার চুল কেটে আলকাতরা মাখিয়ে ও গলায় জুতোর মালা পড়িয়ে গোটা গ্রাম ঘোরান। যাতে আগামী দিনে এমন কাজ না করেন।