বিয়ের আসরে কনের বাবাকে হত্যা, মাকে গুরুতর জখম

রাজধানীর মগবাজারের দিলুরোড এলাকায় প্রিয়াংকা সুটিং হাউজ নামের একটি কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ের অনুষ্ঠানে কনের বাবা তুলা মিয়া (৪৫) ও মা ফিরোজা খাতুনকে ছুরিকাঘাত করেছে এক যুবক। এ ঘ'টনায় কনের বাবা মা'রা গেছেন। গু'রুতর জখম কনের মা বর্তমানে হাসপাতালে চিকি'ৎসাধীন।

এ ঘ'টনায় সজীব আহমেদ রকি (২৩) নামের ওই যুবককে গণপিটুনি দেয় বিয়েতে আগতরা। পরে তাকে পুলিশি হেফাজতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রকি পুলিশকে জা'নান, বিয়ের কনের স'ঙ্গে তার প্রেমের স'ম্পর্ক ছিল। প্রেমিকার বিয়ে সইতে না পেরে তিনি এমন করেছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বিজিএমইএ ভবনের পেছনের সেন্টারে এ ঘ'টনা ঘটে। বিয়ের কনে ছিলেন স্বপ্না আক্তার ফাতেমা নামের ১৮ বছরের এক মেয়ে। তার বাবার নাম তুলা মিয়া। মা ফিরোজা খাতুন।

হাতিরঝিল থা'নার ভারপ্রাপ্ত ক'র্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রশিদ জাগো নিউজকে বিষয়টি নি'শ্চিত করেছেন। তিনি জা'নান, হাতেগোনা কয়েকজনকে নিয়ে বিয়েটি অনুষ্ঠিত হচ্ছিল। এসময় ওই ছেলে সেন্টারে ঢুকে হট্টগোল সৃষ্টি করে। একপর্যায়ে কনের বাবা ও মাকে ছুরিকাঘাত করে। তাদের দুজনকে ইনসাফ বারাকাহ হাসপাতালে নেয়া হলে বাবা’র মৃ'ত্যু হয়।

এ ঘ'টনায় স্থানীয়রা রকিকে গণপিটুনি দেয়। তাকে ঢামেকে ভর্তি রাখা হয়েছে।

রকির স'ঙ্গে কনে স্বপ্না আক্তারের আদৌ কোনো স'ম্পর্ক ছিল কি না সে বিষয়ে পুলিশ এখনো নি'শ্চিত নয়।

–জাগো নিউজ