দেশের খবর

বিয়ের আসরে কনের বাবাকে হত্যা, মাকে গুরুতর জখম

রাজধানীর মগবাজারের দিলুরোড এলাকায় প্রিয়াংকা সুটিং হাউজ নামের একটি কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ের অনুষ্ঠানে কনের বাবা তুলা মিয়া (৪৫) ও মা ফিরোজা খাতুনকে ছুরিকাঘাত করেছে এক যুবক। এ ঘটনায় কনের বাবা মারা গেছেন। গুরুতর জখম কনের মা বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এ ঘটনায় সজীব আহমেদ রকি (২৩) নামের ওই যুবককে গণপিটুনি দেয় বিয়েতে আগতরা। পরে তাকে পুলিশি হেফাজতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রকি পুলিশকে জানান, বিয়ের কনের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। প্রেমিকার বিয়ে সইতে না পেরে তিনি এমন করেছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বিজিএমইএ ভবনের পেছনের সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে। বিয়ের কনে ছিলেন স্বপ্না আক্তার ফাতেমা নামের ১৮ বছরের এক মেয়ে। তার বাবার নাম তুলা মিয়া। মা ফিরোজা খাতুন।

হাতিরঝিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রশিদ জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, হাতেগোনা কয়েকজনকে নিয়ে বিয়েটি অনুষ্ঠিত হচ্ছিল। এসময় ওই ছেলে সেন্টারে ঢুকে হট্টগোল সৃষ্টি করে। একপর্যায়ে কনের বাবা ও মাকে ছুরিকাঘাত করে। তাদের দুজনকে ইনসাফ বারাকাহ হাসপাতালে নেয়া হলে বাবা’র মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় স্থানীয়রা রকিকে গণপিটুনি দেয়। তাকে ঢামেকে ভর্তি রাখা হয়েছে।

রকির সঙ্গে কনে স্বপ্না আক্তারের আদৌ কোনো সম্পর্ক ছিল কি না সে বিষয়ে পুলিশ এখনো নিশ্চিত নয়।

–জাগো নিউজ

Back to top button
error: Content is protected !!
Close