অভিনব উপায়ে ক্লাস নিয়ে নেট দুনিয়ায় ভাইরাল বায়োলজির শিক্ষিকা

স্পেনের স্কুলের বায়োলজির (জীববিজ্ঞান) এক শিক্ষিকা অভিনব পোশাকে ক্লাস নিয়ে ইন্টারনেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা গেছে, ওই শিক্ষিকার গোটা পোশাক জুড়ে মানুষের শারীরবৃত্তীয় অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলো আঁকা। মার্কিন এক দৈনিকের প্রতিবেদন থেকে এ খবর জানা গেছে।

মার্কিন দৈনিক নিউ ইয়র্ক পোস্টের অনলাইন প্রতিবেদন অনুযায়ী, চমকপ্রদ পোশাকে ক্লাসে হাজির স্পেনের ওই শিক্ষিকার নাম ভেরোনিকা ডিউক। তিনি ১৫ বছর ধরে শিক্ষকতা করছেন। তবে এখনো তৃতীয় গ্রেডের শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান, ইংরেজি, কলা, সমাজবিদ্যা ও স্প্যানিশ ভাষার মতো নানা বিষয় পড়ান তিনি।

৪৩ বছর বয়সী শিক্ষিকা একদিন ইন্টারনেটে ‘অ্যানাটমি বডিস্যুট’ নামের ওই পোশাকের খোঁজ পান। তিনি এই পোশাকের সাহায্যে শিক্ষার্থীদের আরও মজাদার উপায়ে জীববিজ্ঞান শেখানোর সিদ্ধান্ত নেন। ভেরোনিকা ধারণা করেছিলেন, এমন পোশাকে আকৃষ্ট হয়ে সবাই শারীরবৃত্তীয় বিষয়গুলো সম্পর্কে আরও সহজে জানতে পারবে।

ইন্টারনেটে ভাইরাল হওয়ার পর স্থানীয় এক সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানান, মানুষের শরীরের অভ্যন্তরে থাকা বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলোর অবস্থান বোঝা ছোটদের পক্ষে যে বেশ কঠিন সেটা তিনি অনেক আগে থেকেই বুঝতেন। তাই পোশাকটি নজরে আসার পর সিদ্ধান্ত নেন, এটি পরে শিক্ষার্থীদের জীববিজ্ঞান পড়াবেন।

ভেরোনিকা নামের ওই শিক্ষিকার স্বামী সেদিন তার সঙ্গে ক্লাসে গিয়েছিলেন। তিনি তার স্ত্রীর ওই পোশাক পরে ক্লাস নেয়ার ছবি তোলেন। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে পোস্ট করতেই মুহূর্তে তা ভাইরাল হয়। এখন পর্যন্ত ৬৬ হাজার লাইক ছাড়াও ১৩ হাজার মানুষ সেটি রিটুইট (পুনরায় টুইট) করেছেন এবং তাতে মন্তব্য পড়েছে অজস্র।

তবে স্পেনের জীববিজ্ঞানের শিক্ষিকা ভেরোনিকা ডিউক যে এই প্রথম এমন অভিনব পোশাক পরে ক্লাস নিলেন তা কিন্তু নয়। এর আগে ইতিহাস পড়ানোর সময় তিনি ছদ্মবেশ ধারণ করেন। আবার ব্যাকরণ পড়াতে গিয়ে বিশেষ্য, বিশেষণ আর ক্রিয়া বোঝাতে তিনি কার্ড বোর্ডের মুকুট ব্যাবহার করেন।