দেয়াল টপকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রবেশ, রি’মান্ডে তরুণ

দেয়াল টপকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রবেশ করার অ'ভিযোগে শেখ রাসেল (২০) নামে এক তরুণকে রি’মান্ডে নিয়েছে পুলিশ। শুক্রবার পাঁচ দিনের রি’মান্ড চেয়ে ওই তরুণকে আদালতে হাজির করে তেজগাঁও থা'নার পুলিশ। শুনানি শেষে দুদিন রি’মান্ডে নিয়ে শেখ রাসেলকে জি’জ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি দিয়েছেন ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালত।

বিনা অনুমতিতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ওই তরুণের প্রবেশের রহস্য জানতে তাকে রি’মান্ডে নেয়া হয়েছে বলে শনিবার (২৮ ডিসেম্বর) জা'নিয়েছেন মা’মলার তদন্ত ক'র্মকর্তা তেজগাঁও থা'নার উপপরিদর্শক (এসআই) ফারুক খান।

উল্লেখ্য, গত ২২ ডিসেম্বর দেয়াল টপকে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মতো সংরক্ষিত এলাকায় প্রবেশ করলে শেখ রাসেলকে আ’টক করে নিরাপত্তা রক্ষীরা। এর পর তাকে পুলিশে দিলে বিনাঅনুমতিতে সংরক্ষিত এলাকায় প্রবেশের দায়ে ওই তরুণের বি’রুদ্ধে মা’মলা করেন তেজগাঁও থা'নার পুলিশ।

২৬ ডিসেম্বর তেজগাঁও থা'নার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. মিজানুর রহমান বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষ'মতা আ'ইনে এ মা’মলা করেন। জানা গেছে, ওই তরুণের নাম শেখ রাসেল (২০)। তিনি নেত্রকোনার আটপাড়া থা'নার মঙ্গলসিদ্ধ পূর্বপাড়া গ্রামের আবদুল লতিফের ছেলে।

শেখ রাসেলের বি’রুদ্ধে করা মা’মলার এজাহারে বলা হয়েছে, ২২ ডিসেম্বর বেলা সাড়ে ১১টায় তেজগাঁওয়ে অবস্থিত প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের তিন ও চার নম্বর গেটের মাঝ বরাবর কাঁঠালগাছে উঠে ভেতরে প্রবেশ করার চেষ্টা করে শেখ রাসেল। কিন্তু তাতে ব্য’র্থ হয়ে নিচে প'ড়ে আ’হন হন তিনি। আ'হত রাসেলকে এসএসএফ (অপারেশন) অফিসে নিয়ে যায়। এর পর তাকে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেয়ার ব্যব'স্থা করেন তেজগাঁও পু'লিশের এএসআই মিজানুর রহমান।

রি’মান্ডের আবেদন বিষয়ে মা’মলার তদন্ত ক'র্মকর্তা তেজগাঁও থা'নার উপপরিদর্শক (এসআই) ফারুক খান ঢাকার আদালতকে বলেন, সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে আ’সামি শেখ রাসেলকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখার কারণে তাকে জি’জ্ঞাসাবাদ করা সম্ভব হয়নি।

এর পর তার পাঁচ দিন রি’মান্ড চায়ে আবেদন করেন তিনি। আদালত উভয়পক্ষের বক্তব্য শুনে রাসেলের দুদিন রি’মান্ড মঞ্জুর করেন।

আদালতে আসামি রাসেল জা'নান, প্রধানমন্ত্রীর স'ঙ্গে দেখা করার জন্য সেখানে তিনি গিয়েছিলেন। তবে সংরক্ষিত এলাকায় বিনা অনুমতিতে ঢোকার ব্যাপারে কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি তিনি।

তদন্ত ক'র্মকর্তা এসআই ফারুক খান জা'নিয়েছেন, রাসেলের ভাষ্যমতে– তিনি নারায়ণগঞ্জে একটি গার্মেন্টসে চাকরি করেন। তবে তিনি অসংলগ্ন কথা'বার্তা বলছেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে তার দেয়াল টপকে ভেতরে প্রবেশের বিষয়টি এখনও বোধগম্য নই।