ফুল ব্যবসায়ীর স্ত্রী’র অ্যাকাউন্টে ৩০ কোটি টাকা! সাধারণ ফুলের ব্যবসায়ী

সাধারণ ফুলের ব্যবসায়ী সাঈদ মালিক বুরহান। আয়-রোজগার দিয়ে কোনো মতে দিন চলে। এরই মধ্যে বাড়ির লোক অ’সু'স্থ হওয়ায় টাকার জন্য হন্যে হয়ে ঘুরছেন তিনি।

এ সময় তার বাড়িতে হাজির ব্যাংক অফিসাররা। কোনো সাহায্য দিতে নয়, তারা জানতে এসেছেন, ফুল ব্যবসায়ীর স্ত্রী’র অ্যাকাউন্টে ৩০ কোটি টাকা কোথা থেকে এলো।

ভারতের কর্নাট’ক রাজ্যের চান্নাপাটনা শহরে চা*ঞ্চল্যকর এ ঘ'টনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে আনন্দবাজার।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২ ডিসেম্বর ওই ফুল ব্যবসায়ীর বাড়িতে ব্যাংকের কয়েকজন ক'র্মক’র্তা উপস্থিত হন। তারা জা'নান, বুরহানের স্ত্রী’ রেহানার অ্যাকাউন্টে বড় অংকের টাকা জমা পড়েছে। এই টাকার উৎস জানতে চান তারা।

ব্যাংক ক'র্মক’র্তাদের কথা শুনে আকাশ থেকে পড়েন বুরহান। টাকার নিয়ে কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি তিনি। পরে স্ত্রী’কে নিয়ে দু’জনের আধার কার্ডসহ ব্যাংকে দেখা ক'রতে বলেন তারা।

বুরহান জা'নান, ব্যাংকে গেলে সেখানকার ক'র্মীরা তাদের ওপর মানসিক চাপ তৈরির চেষ্টা করে। এমনকি ব্যাংক ক'র্মচারীরা চাইছিলেন একটি নথিতে সই করিয়ে নিতে। কিন্তু এমন কোনো নথিতে সই করবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন।

বুরহান জা'নান, কিছুদিন আগে বুরহান অনলাইনে একটি শাড়ি কেনেন। তারপর তার কাছে একটি ফোন আসে। অন্য প্রান্তে থেকে বলা হয়, তিনি একটি গাড়ি জিতেছেন। তার ব্যাংক ডিটেইলস লাগবে। তাই ওই ব্যাংক অ্যাকাউন্টের নম্বর দেন তিনি। তারপরই সম্ভবত তার স্ত্রী’র অ্যাকাউন্টে এই ৩০ কোটি টাকা জমা পড়ে। কোথা থেকে এল এই টাকা, জানার জন্য তারাও নানান চেষ্টা করেন কিন্তু বুঝতে পারেন না।

বুরহান আয়কর দপ্তরে একটি অ’ভিযোগ করেছিলেন। কিন্তু তার দা'বি সেই অ’ভিযোগ নিয়ে প্রথমে বিশেষ কোনো ত’দন্ত করেনি আয়কর দপ্তর। পরে জানুয়ারিতে সেই অ’ভিযোগের ভিত্তিতে চান্নাপাটনা থা'নায় তথ্যপ্রযুক্তি আ'ইনে একটি মা’মলা দা'য়ের করা হয়।

চান্নাপাটনা থা'নার এক ক'র্মক’র্তা জা'নান, বুরহানের স্ত্রী’র ব্যাংক অ্যাকাউন্টে এমন অনেক লেনদেন হয়েছে। কিন্তু এ স’ম্পর্কে তিনি হয়তো কিছুই জা'নেন না।

পু’লিশ জানিয়েছে, এ সব লেনদেনের পেছনে কে বা কারা রয়েছেন তা তারা খুঁজে বের করবে।