ভারতীয় ২০ সেনার মৃ’ত্যু চীনের আ’ক্রমণে, সীমান্তের উত্তাপ বাড়ল

ভারত-চীন লাদাখ সীমান্তের গালওয়ান উপত্যকায় দুই দেশের সে'নাদের সংঘ'র্ষে ঘ'টনা ঘটে। সোমবার (১৫ জুন) রাতে চীনা সৈ'ন্যদের স'ঙ্গে সংঘ'র্ষে শহিদ হয়েছিলেন এক ভারতীয় সে'না-অফিসার ও দুই জওয়ান। সকালে খবর এমনটাই ছিল। কিন্তু সংবাদ সংস্থা এএনআই জানাচ্ছে, অ'ন্তত পক্ষে ২০ জন ভারতীয় সে'নার মৃ'ত্যু হয়েছে লাদাখ সীমান্তে। মঙ্গলবার (১৬ জুন) দুপুরে খবর এসেছিল, লাদাখে রীতিমতো যু'দ্ধের প'রিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

কিন্তু রাতের মধ্যেই মা'রাত্মক খবর এল চীন-ভারত সীমান্ত থেকে। জানা গিয়েছে, কমপক্ষে ২০ জন ভারতীয় সে'নার মৃ'ত্যু হয়েছে চিনা সৈ'ন্যদের স'ঙ্গে সংঘ'র্ষে। চীনের সংবাদমাধ্যমেও অবশ্য প্র'কাশ্যে এসেছে, তাঁদের সৈ'ন্যদেরও অনেকের প্রা'ণ গিয়েছে। সংবাদ সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, নি'হত ও আ'হত হয়েছেন চীনের প্রায় ৪৩ জন সে'না।

শুধু তাই নয়, বেজিঙের অ'ভিযোগ, সীমান্ত পার করে চিনাদের উপর হা'মলা চালিয়েছে ভারতীয় সে'না। প'রিস্থিতি স্বাভাবিক ক'রতে দু দেশের শী'র্ষ সে'না আধিকারিকরা বৈঠক করেছেন। গোটা প'রিস্থিতি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর স'ঙ্গে বৈঠক করেন প্র'তির'ক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং ও জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল। তিন সে'নার প্রধানদের স'ঙ্গেও বৈঠক করেছেন প্র'তির'ক্ষা মন্ত্রী। বিদেশ মন্ত্রকের তরফে অবশ্য বলা হয়েছে, চুক্তি ভঙ্গ করেছে চিন। সেই কারণেই এমন ঘ'টনা। না হলে এমন ক্ষয়ক্ষ'তি হত না।

সরকারি বিবৃতিতে সকালে অবশ্য জা'নানো হয়েছিল, ‘গতকাল রাতে গালওয়ান উপত্যকায় দ্বন্দ্ব কা'টিয়ে ডি-এসকেলেশনের সময়ই হিংসাত্মক সম্মুখসমর বাঁধে। তাতে দু পক্ষই হতাহত হয়েছে। ভারতে এক অফিসার ও দুই জওয়ানের মৃ'ত্যু হয়েছে। বর্তমানে সে'নাবা'হিনীর শী'র্ষ আধিকারিকরা উত্তেজনা প্রশমনে বৈঠক করছেন।’ যদিও গু'লি চলেনি বলেই জা'নানো হয় সে'না সূত্রে। খালি হাতে লড়াই করেই প্রা'ণ গিয়েছে ভারতীয় অফিসার ও জওয়ানদের। কিন্তু রাতের মধ্যেই সেই সংখ্যাটা ২০ হয়ে যাওয়ায় সীমান্তের উত্তাপ আরও বাড়ল।